“ডিজিটাল বাংলাদেশ” ছিল বর্তমান ক্ষমতাসীন সরকারি দলের ২০০৮ সালের নির্বাচনী ইশতেহারের মূল কথা। পরবর্তীতে এই শ্লোগানটি সরকারি নীতিতে রুপ নেয়। তাই তখন থেকেই সরকারি প্রতিটি কাজে ডিজিটাল বাংলাদেশ শ্লোগানের প্রতিফল ঘটাতে সরকারের প্রচেষ্টা অব্যাহত রয়েছে।

সরকার এমন একটি প্রতিষ্ঠান, যা জনগণের দ্বারা এবং জনগণের কল্যাণেই পরিচালিত হয়। কাজেই সরকারি সেবাদানে যারা নিয়োজিত থাকেন তাদের দেখাশোনা করার দায়িত্বও সরকারের। কারণ সরকারি নীতি বাস্তবায়নে সরকারি কর্মচারীগণই মুখ্য ভূমিকা পালন করে থাকেন।

“ডিজিটাল বাংলাদেশ” ধারণা বাস্তবায়ন ও সরকারি সেবা সহজীকরণে সরকারি ভাবে বিভিন্ন উদ্যোগ গৃহীত হয়েছে। চিফ একাউন্টস এন্ড ফিন্যান্স অফিসারের কার্যালয়, পেনশন ও ফান্ড ম্যানেজমেন্ট (সিএএফও পিএন্ডএফএম) হল সেই সকল উদ্যোগেরই একটি অংশ। এভাবে বর্তমান ও প্রাক্তন উভয় সরকারি কর্মচারীগণের সামাজিক নিরাপত্তা বৃদ্ধিতে সরকার সচেষ্ট হয়েছে।

সরকারি পেনশন ব্যবস্থাপনায় প্রযুক্তির ব্যবহার সহজতর সরকারি সেবা প্রদানের নিশ্চয়তা প্রদান করে। বর্তমান কিংবা অবসর প্রাপ্ত যে কোনো সরকারি কর্মচারীকে নির্দিষ্ট সেবা স্বয়ংক্রিয়ভাবে প্রদানের লক্ষ্যেই সিএএফও পেনশন ও ফান্ড ম্যানেজমেন্ট স্থাপিত হয়েছে। আমাদের লক্ষ্য হচ্ছে সরকারি সেবার মানের উন্নয়ন।

২০১৮ সালের আগস্ট মাসে সিএএফও পেনশন ও ফান্ড ম্যানেজমেন্ট এর যাত্রা শুরু হয়, যা বর্তমানে নিম্নলিখিত বিষয়গুলো নিয়ে কাজ করছেঃ

  • সকল পেনশনারদের ডাটাবেজ তৈরি ও সংরক্ষণ, পেনশন প্রদান ও এই সংক্রান্ত সমস্যা সমাধান।
  • সরকারি কর্মচারীদের সাধারণ ভবিষ্য তহবিল (জিপিএফ) হিসাবের সংরক্ষণ এবং ব্যবস্থাপনা।
  • বাজেটারি ও এক্সট্রা-বাজেটারি প্রতিষ্ঠান সমূহের ভবিষ্য তহবিল এর ব্যবস্থাপনা।

সিএএফও পেনশন ও ফান্ড ম্যানেজমেন্ট শুরু থেকেই পেনশনারদের স্বয়ংক্রিয়ভাবে কাগজহীন পরিবেশে সেবাদান করে আসছে, যেন পেনশনাররা ঘরে বসেই তাদের কাঙ্ক্ষিত সেবা পেয়ে থাকেন। যাকে আমরা বলতে পারি, “উন্নত নাগরিক সেবা” জনগণের দোরগোড়ায় পৌঁছে দেয়া।

পুন:স্থাপিত পেনশনারদের জন্য আমরা স্বয়ংক্রিয় পেনশন ফিক্সেশন এবং বকেয়া প্রদান ব্যবস্থা প্রণয়ন করেছি, যা এই অফিস থেকেই প্রদান করা হচ্ছে। নতুন করে যারা পেনশনে যাচ্ছেন, তাদের আনুতোষিক সংশ্লিষ্ট পে-পয়েন্ট থেকে প্রদান করে সম্পূর্ণ তথ্য আমাদের নিকট প্রেরণ করা হচ্ছে। তাছাড়া বিদ্যমান পেনশনারদের নিয়েও আমরা কাজ করে যাচ্ছি। পর্যায়ক্রমে সকলের তথ্য সিএএফও পেনশন ও ফান্ড ম্যানেজমেন্ট এ স্থানান্তরের প্রক্রিয়া বাস্তবায়নাধীন।

আমাদের কর্মক্ষেত্রের আরেকটি দিক হলো সাধারণ ভবিষ্য তহবিল (জিপিএফ)। আমাদের মূল লক্ষ্য হলো একটি কেন্দ্রীয় জিপিএফ ডাটাবেজ তৈরি করা, যাতে করে আমরা জিপিএফ এর স্বয়ংক্রিয় ভাবে জিপিএফের চাঁদার পরিমান, অগ্রিম উত্তোলন, জিপিএফের সুদ এমনকি চুড়ান্ত প্রদানের হিসাব নির্ভুলভাবে প্রদান করতে পারি। ২০১৮ সালে স্থাপিত হওয়ার পর থেকেই সিএএফও পেনশন ও ফান্ড ম্যানেজমেন্ট উক্ত বিষয়গুলোতে নিজেদের জ্ঞান সমৃদ্ধকরণ করার পাশাপাশি বর্তমানে বিদ্যমান এবং নতুন পেনশনারদের নিয়ে কাজ করে যাচ্ছে।

সিএএফও পেনশন ও ফান্ড ম্যানেজমেন্ট মূলত সিভিল পেনশনারদের নিয়ে কাজ করে। পেনশন কিংবা জিপিএফ এর হিসাব কিংবা এই সম্পর্কিত তথ্য ও সেবা যেন ঘরে বসেই সুবিধাভোগীরা পেয়ে থাকেন সেই প্রচেষ্টার অংশ হিসেবে এই ওয়েবসাইটি তৈরি করা হয়েছে। সেবার মান আরো উন্নতি করতে এর নিয়মিত উন্নয়নের প্রচেষ্টা অব্যাহত থাকবে।

সেবা সহজীকরণ ও সেবার মান বৃদ্ধির উদ্দেশ্য নিয়েই সিএএফও পেনশন ও ফান্ড ম্যানেজমেন্ট এর যাত্রা শুরু। নিয়মিত পদ্ধতির উন্নতি এবং সেবা প্রদানের অনেক সুযোগ ও সম্ভাবনা এই অফিসের রয়েছে। তবে বিভিন্ন বাধা কাটিয়ে সময়মত সেবা প্রদান করার সাথে সাথে সব বিষয়ে যুগোপযোগী থাকা, আমাদের জন্য এটা একটা বড় চ্যালেঞ্জও বটে।

সেবা প্রদানের মানসিকতা এবং দলগত প্রচেষ্টার মাধ্যমে এই অফিস তার কাঙ্ক্ষিত লক্ষ্যে পৌঁছাতে পারবে বলেই আমি আশা করছি।







  • ফোন:
    +৮৮০২-৪১০৩০২৯০
    +৮৮০২-৪১০৩০২৯৬

  • হিসাব ভবন (৪র্থ তলা)
    সেগুনবাগিচা, ঢাকা-১০০০
    খোলা (সকাল ০৯.০০-বিকেল ০৫.০০)

© ২০২১ চিফ একাউন্টস এন্ড ফিন্যান্স অফিসারের কার্যালয়, পেনশন ও ফান্ড ম্যানেজমেন্ট, সর্বসত্ত্ব সংরক্ষিত।